Home » COMPUTER » BIOS || কম্পিউটার বায়োস কি?

BIOS || কম্পিউটার বায়োস কি?

বায়োস কি?

BIOS মানে Basic input output system । এরমধ্যে কিছু information save করা থাকে এই instruction গুলির মাধ্যমে কম্পিউটার বুঝতে পারে যে কম্পিউটারের সঙ্গে যুক্ত component/peripheral গুলির instruction flow গুলোকে কিভাবে control করতে হবে।

এই বায়োস হলো এক ধরনের firmware অর্থাৎ সহজ ভাষায় বলতে গেলে এটি একটি ROM chip এবং এরমধ্যে কিছু প্রোগ্রাম লোড করা আছে। যেহেতু ROM একটি read-only memory তাই এর মধ্যে থাকা ইনস্ট্রাকশন গুলিকে চেঞ্জ করা যায় না।

কিন্তু বর্তমান যুগের computer গুলিতে ROM এর বদলে flash memory বায়োস হিসাবে ব্যবহার করা হয়, যাতে দরকার মতন এই BIOS এর information গুলিকে update করা যায়। 

BIOS এই chip গুলিকে block হিসেবে ভাগ করা থাকে এবং তার মধ্যে কিছু ব্লক lock করা থাকে যাতে accidental reprogramming থেকে রক্ষা করা যায়।

BIOS এই প্রোগ্রাম করার সুবিধা থাকার জন্য আমাদের বারবার কম্পিউটারের BIOS চেঞ্জ করতে হয় না শুধুমাত্র সেটির মধ্যে থাকা প্রোগ্রামটিকে আপডেট করলেই হয়।

যখন আপনি কোন কম্পিউটার স্টার্ট করেন তৎক্ষণাৎ BIOS  এর কাজ করা শুরু করে দেয়। এটি প্রথমে কম্পিউটারের সঙ্গে থাকা সমস্ত হার্ডওয়ার গুলিকে পরীক্ষা করে দেখে এবং পরীক্ষা করার সময় কোন সমস্যা পেলে error message হিসাবে সেটিকে জানিয়ে দেয়।

এরপর BIOS operating system load করার কাজ করে। এই operating system যেকোনো ধরনের হতে পারে DOS, os/2, Unix,অথবা অন্য যেকোন ধরনের operating system যা কম্পিউটারের মেমোরিতে লোড করা আছে। 

কম্পিউটার স্টার্ট হওয়ার পরে operating system যখন নিজের কাজ করা শুরু করে দেয় তারপরেও বায়োস অনেক গুরুত্বপূর্ণ কাজ করে থাকে।

যেমন কোন শব্দকে কম্পিউটার screen এ ডিসপ্লে করা অথবা keyboard থেকে ইনস্ট্রাকশন সংগ্রহ করা ,কম্পিউটার hard disk থেকে বিভিন্ন information read করা বা তাতে write করা।

কীভাবে BIOS আপডেট করবেন

প্রযুক্তি পরিবর্তনের সাথে সাথে নতুন ডিভাইস আবিরভাব হয়। এই ডিভাইসগুলির সাথে কম্পিউটারের কাজ করার জন্য, বায়োসকে update করতে হবে।

যদি আপনার operating systemটি কোনও নতুন পেরিফেরিয়াল সনাক্ত করতে ব্যর্থ হয় তবে এটির কারণ, BIOS কীভাবে এটি কে পরিচালনা করবে জানে না। আপনি যদি এ জাতীয় কোনও সমস্যার মুখোমুখি হন তবে কোনও BIOS update উপলব্ধ কিনা তা যাচাই করা উচিত।

আপনাকে প্রথমে BIOS সংস্করণটি পরীক্ষা করতে হবে । এটি বুট করার সময় BIOS প্রবেশের মাধ্যমে, ডেল টিপে এটি করা যেতে পারে।

আপনার কাছে একবার আপনার কম্পিউটার  BIOS version পাওয়া গেলে, বায়োস আপডেট করার জন্য, আপনি BIOS এর কোনও আপডেট হওয়া সংস্করণ উপলব্ধ কিনা তা দেখতে আপনার কম্পিউটার প্রস্তুতকারকের ওয়েবসাইটে যান।

যদি থাকে তবে এটি download করুন এবং এটি চালান। প্রক্রিয়াটি সাধারণত BIOS চিপে পূর্ববর্তী সমস্ত তথ্য মুছে ফেলা হয় এবং নতুন তথ্য দিয়ে এটিকে আবার লিখতে থাকে। তবে আগে দেখে নিতে হবে download source টি যেন নির্ভর যোগ্য হয়, সতর্ক না থাকলে computer boot sector virus দারা আক্রান্ত হতে পারে।

BIOS আপগ্রেড করার সময়, আপনার পাওয়ার ব্যাকআপ রয়েছে তা নিশ্চিত করুন। কারণ প্রক্রিয়া চলাকালীন কম্পিউটারটি বন্ধ হয়ে থাকলে, BIOS corrupt হতে পারে এবং এটি ঠিক করার জন্য আপনার কোনও প্রযুক্তিবিদ প্রয়োজন হবে।

আপনার boot CD/DVD সাহায্য করতে পারে বা না পারে, নির্ভর করে কীভাবে BIOS পুনরায় লেখার সময় power cut বা হঠাৎ সিস্টেম বন্ধ হয়ে যাওয়ার পরে BIOS দাঁড়িয়ে থাকে।

গুরুত্বপূর্ণ: আপনার কম্পিউটারটি যদি সঠিকভাবে কাজ করে তবে আপনার BIOS আপডেট বা ফ্ল্যাশ করার দরকার নেই। যাই হোক না কেন, আপনি যদি চান তবে আমরা আপনাকে সুপারিশ করি যে আপনি নিজের BIOS নিজে আপডেট করার চেষ্টা করবেন না, বরং এটির পরিবর্তে এমন কোনও কম্পিউটার প্রযুক্তিবিদকে নিয়ে যান, যা এটি আরও ভালভাবে সজ্জিত হতে পারে।